আসন্ন রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার আড়ানী, বাউসা ও চকরাজাপুর ইউনিয়ন নির্বাচনে নতুনের ভীড়ে জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে পুরাতন মুখ

0
93

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আসন্ন রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী ইউনিয়ন, বাউসা ইউনিয়ন ও চকরাজাপুর ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে ইউনিয়নবাসীদের মধ্যে চলছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা। তবে নতুন প্রার্থীদের ভীড়ে পুরাতন মুখ হারিয়ে যাবে এমন প্রত্যাশা করছেন ইউনিয়নবাসীদের অনেকেই।
আড়ানী ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ থেকে ৩ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এনামুল হক।
এদিকে বাউসা ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ থেকে ১৫ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নাজমুল হোসেন এবং চকরাজাপুর ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ থেকে ৫ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী হলেও জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছেন চকরাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শিক্ষক মিজানুর রহমান।
এদিকে বর্তমানে যাঁরা চেয়ারম্যান পদে দায়িত্বে রয়েছেন তাঁরাও পুনরায় নির্বাচিত হওয়ার লক্ষ্যে ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে । তবে সাধারন ভোটারগন কিভাবে তাঁদের কে গ্রহন করবেন তা নিয়েও শংকায় রয়েছেন দায়িত্বে থাকা চেয়ারম্যানগন। বর্তমান দায়িত্বে থাকা চেয়ারম্যানগন বলছেন আমরা নিজ নিজ ইউনিয়নে ব্যাপক দৃশ্যমান উন্নয়ন করেছি এবং সার্বক্ষনিক আমাদের সাংসদ, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব শাহরিয়ার আলম এর দিক নির্দেশনা মোতাবেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি। তবে আমরা আশাবাদী আমাদের কে পুনরায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনয়ন দিলে ইউনিয়নের বাকী কাজগুলো সম্পন্ন করবো। অন্যদিকে সাধারন জনগন বলছেন প্রকৃত পক্ষে দুঃসময়ে তাঁদের কে কম পাওয়া গেছে।
বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন গত ১০ নভেম্বর তফসিল ঘোষনা করেছেন আড়ানী, বাউসা ও চকরাজাপুর ইউনিয়নের নির্বাচন আগামী ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। তফশীল ঘোষনা পূর্ব থেকেই নির্বাচনী হাওয়া চলছে ইউনিয়ন তিনটিতে। তবে তফশীল ঘোষনার পর থেকে নির্বাচনী হাওয়া আরো বৃদ্ধি পেয়েছে।
আমাদের প্রতিবেদক ইউনিয়নের নির্বাচনী খোঁজ খবর নিতে গিয়ে সাধারন ভোটার কাছ থেকে যে তথ্য পেয়েছে তাতে তৃণমুলের মতামত, সাংগঠিত বিবেচনা এবং সৎ যোগ্য প্রার্থী বিচেনায় নতুনদের ভীড়ে পুরাতন মুখ হারিয়ে যাবার সম্ভাবনা রয়েছে ।

ইউনিয়ন নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রসঙ্গে বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ একটি বৃহৎ সংগঠন। তাই আসন্ন আড়ানী, বাউসা ও চকরাজাপুর ইউনিয়ন নির্বাচনে দল থেকে একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন চাইতে পারে, এটা কোন ব্যাপর না। এবিষয়ে উপজেলার আড়ানী, বাউসা এবং চকরাজাপুর ইউনিয়নে আমরা উপজেলা আওয়ামীলীগ বর্ধিত সভা করেছি এবং সেখানে থেকে প্রার্থীদের নামের তালিকা ইতোমধ্যে জেলায় পাঠানো হয়েছে । জেলা ২/১ দিনের মধ্যেই কেন্দ্রে পাঠাবে। এরপর কেন্দ্র থেকে দলীয় সভানেত্রী ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যাঁকে মনোনীত করবেন তিনি হবেন নৌকার প্রার্থী। এ ক্ষেত্রে যদি কেউ বিদ্রোহী প্রার্থী হয়, তাহলে তাঁকে দল থেবে বহিস্কার করা হবে। তিনি আরো বলেন, ইতেপূর্বে যাঁরা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করেছেন, তাঁরা দলের সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী আওয়ামীলীগের মনোনয়নপত্র তুলতে পারবেন না।