জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২য় রাউন্ড পালনে সিটি কর্পোরেশন পর্যায়ে ওরিয়েন্টেশন ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত

0
11

 

পান্না,রাজশাহী ব্যুরো :  রাজশাহীতে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২য় রাউন্ড আগামী ৫ জুন থেকে ১৫ জুন ২০২১ পক্ষকালব্যাপী পালন উপলক্ষ্যে সিটি কর্পোরেশন পর্যায়ে ওরিয়েন্টেশন ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার দুপুরে নগরভবনের সরিৎ দত্ত গুপ্ত সভাকক্ষে রাসিকের শিক্ষা, স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা স্থায়ী কমিটির সভাপতি ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুজ্জামান টুকুর সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্যানেল মেয়র বলেন, ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল শিশুর জন্য নিরাপদ। শিশুর অন্ধত্ব থেকে রক্ষা, রোগ প্রতিরোধ ‘ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ শিশুর মৃত্যু ঝুঁকি কমাতে ভিটামিন ‘এ’ অপরিহার্য। কোন শিশু যেন ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানোর সরকারি এ কার্যক্রম থেকে বাদ না পড়ে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। শিশুর স্বাস্থ্যসুরক্ষায় ইপিআই কার্যক্রমে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাফল্য উল্লেখযোগ্য। সরকারের নানামূখী উদ্যোগের ফলে মাতৃমৃত্যু হার অনেকাংশে লাঘব হয়েছে। যার ফলে সুস্থ মা ও সুস্থ সন্তান প্রসব হচ্ছে। মাননীয় মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের গতিশীল নেতৃত্বে বর্তমান পরিষদ রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবেশ উন্নয়নে নানান পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন কাজ এগিয়ে চলেছে।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই আগামী দিনের শিশুর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সরকারী কর্মসূচি সুষ্ঠু ও সফলভাবে রাজশাহী মহানগরীতে পালনে এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে।

জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পের মাধ্যমে ৬-১১ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো এবং শিশুর বয়স ৬ মাস পূর্ণ হলে মায়ের দুধের পাশাপাশি পরিমাণ মত ঘরে তৈরি সুষম খাবার খাওয়ানোর জন্য সকলকে অবহিত করতে হবে। এ ক্যাম্পেইনের উদ্দেশ্যে ৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের মধ্যে ভিটামিন এ এর অভাবজনিত রাতকানা রোগ কমিয়ে আনা, ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল কমিয়ে আনা এবং শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে অপুষ্টিজনিত মৃত্যু প্রতিরোধ করা।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিচালক স্বাস্থ্য কার্যালয় রাজশাহীর সহকারী পরিচালক ডাঃ আনোয়ারুল কবীর, রাজশাহীর সিভিল সার্জন ডাঃ আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার, জাতীয় পুস্টি সেবা ও জনস্বাস্থ্য পুস্টি প্রতিষ্ঠানের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডাঃ মোঃ আব্দুল আলীম।
রাজশাহীতে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন কার্যক্রম বিষয়ে সার্বিক চিত্র উপস্থাপন করেন রাসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ এফএএম আঞ্জুমান আরা বেগম। বক্তব্য রাখেন ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ কামরুজ্জামান।
সভায় জানানো হয়, রাজশাহী মহানগরীতে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন ২য় রাউন্ড সুষ্ঠু ও সফলভাবে বাস্তবায়নে ২৭৫টি কেন্দ্রে ৭৫০জন স্বেচ্ছাসেবী নিয়োজিত থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্র সকাল ৮টা হতে ৪টা পর্যন্ত খোলা রাখা, মাইকিং, মসজিদে জুম্মার নামাজের পূর্বে মসজিদের ইমাম/খতিবের মাধ্যম্যে মুসল্লিদের অবহিতকরণ এবং অন্যান্য উপাসনালনের মাধ্যমেও একই বার্তা প্রেরণ করা হচ্ছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন রাসিকের প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ ও ১নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তাহেরা খাতুন, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ, ৩০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম পিন্টু, ৩নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর মুসলিমা বেগম বেলী, ২নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আয়েশা খাতুন, ৮নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নাদিরা বেগম, রাসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা শিক্ষা অফিস, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, নারী মৈত্রী, ড্যাম, ঢাকা আহসানিয়া মিশন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।