মানুষ মানুষের জন্য, সবাই আমরা মানুষ বললেন উপসচিব রথীন্দ্রনাথ দত্ত

0
26

বিশেষ প্রতিনিধি : সীমাবদ্ধতার মধ্যে দিয়ে মানুষের কল্যানে কাজ করতে চাই। সরকারি দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি, নিজ জন্মভ’মির মানুষের সেবা দিতে পারলে নিজের কাছে ভালো লাগে। সেই ভালো লাগা থেকে আমার জীবনের পথচলা। প্রাপ্যতা অনুযায়ী সেটা দেয়া উচিত। কিন্ত সব ক্ষেত্রে সেটি বাস্তবায়ন হয় না। কারণ আমাদের নীতির সাথে রাজার নীতি সম্পৃক্ত।
তিনি আরো বলেন, রাজনীতি, সংস্কৃতি, শিক্ষানীতি, সবকিছুর পেছনে যেমন অর্থনৈতিক মুক্তির আকাঙ্খা প্রতিয়মান। তদরুপ সম্মান, পুরস্কার প্রাপ্তি, খ্যাতি, ক্ষমতা ও ভাল কাজের স্বীকৃতির মূলে কাজ করে একজন অফিসারের সততা । আমি তাদের একজন হতে চাই। মানুষ, মানুষের জন্য। ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষকেই সমানভাবে দেখতে চাই।
শনিবার(২১ মে) বাঘা উপজেলা শিক্ষক সমিতির কার্যালয়ে ঈদ পরবর্তী মত বিনিময় সভায় নিজের অভিমত ব্যক্ত করে এসব কথা বলেন বাঘার কৃতিসন্তান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উপসচিব রথীন্দ্রনাথ দত্ত।

বাঘা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুনিত কুমার দেবনাথ এর সঞ্চালনায় মতবিনময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সমিতি ও বাঘা উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আনজারুল ইসলাম। সভাপতির বক্তব্যকালে আনজারুল ইসলাম বলেন,কাছে না গেলে,দুর থেকে মানুষকে চেনা-জানা যায়না। কাছে দেখে যতটুকু দেখেছি,তাতে উপসচিব রথীন্দ্রনাথ দত্ত একজন অহংকারহীন মানুষ। তার কাজের মূল্যায়নে বেঁচে থাকবেন,শুধূ বাঘায নয়,দেশের প্রতিটি গ্রাম গঞ্জে।

বক্তব্য রাখেন, আড়ানী পৌর সভার রুস্তমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনারুল হক বারিন,বাঘা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আব্দুল লতিফ মিঞা, পৌর আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান প্রমুখ, । উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পূজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি শী-অশীত কুমার অরুপে বাকু পান্ডে, সাধারণ সম্পাদক অপূর্ব কুমার সাহা এবং শিক্ষক গোলাম মোস্তফা ও সাংবাদিক লালন উদ্দিন সহ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-সূধীজন। সকলেই বর্তমান সরকারের নিকট রথীন্দ্রনাথ দত্তকে আগামীতে সচিব হিসাবে দেখার দাবি জানান।

উল্লেখ্য, হিন্দু স¤প্রদায়ের ২৪ প্রহর ব্যাপী মহানাম যজ্ঞানুষ্ঠান ও শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দের লীলা কীর্তন অনুষ্ঠান উপলক্ষে বাঘা উপজেলার নিজ গ্রাম নারায়নপুর এর বাড়ীতে আসেন রথীন্দ্রনাথ দত্ত। এর পর থেকে শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় করেন তিনি। তাঁর উপস্থিতি মানুষ আনন্দেও সাথে গ্রহন করেন।