বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলামের ব্রেইন টিউমারের অস্ত্র পাচার সম্পূর্ণ

0
79

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি :
রাজশাহীর বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলামের ব্রেইন টিউমারের অস্ত্র পাচার সম্পূর্ণ হয়েছে। রোববার ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালের নিউরো সার্জন ডা. মো. সিরাজুল হক এরশাদ ৬ ঘন্টা ব্যাপি অস্ত্র পাচার করেন।
জানা যায়, ওসি নজরুল অফিসার ইনচার্জ হিসেবে বগুড়ার আদম দীঘি থানায় প্রথম যোগদান করেন। সোখানকার উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম খান রাজু, আদম দীঘি প্রেসক্লাবের সভাপতি হাফিজার রহমান, সাংবাদিক শামসুল আলম জানান, ওসি নজরুল ইসলামের মতো ভালো মানুষ এই থানায় আগে কাউকে পায়নি।
নজরুল ইসলামের দ্বিতীয় কর্মস্থল বগুড়ার দুপচাঁচিয়া থানা। এই উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান, দুপচাঁচিয়া প্রেসক্লাব সভাপতি গোলাম ফারুক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ি ময়েন উদ্দিন খান, সাবেক পৌর মেয়র বেলাল হোসেন, বর্তমান পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর হোসেন ওসি নজরুল ইসলামের ইতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করে তার জন্য দোয়া কামনা করেন।
নজরুল ইসলাম বিভিন্ন থানায় এসআই এবং ওসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ওসির দায়িত্ব পালনকালে ভালো কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ অসংখ্যবার পুরস্কারও পেয়েছেন। তিনি আজ জটিল রোগে আক্রান্ত। তার মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়েছে। বর্তমানে তিনি ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালের নিউরো সার্জন ডা. মো. সিরাজুল হক এরশাদের অধীনে ভর্তি হয়ে ৬ ঘন্টা ব্যাপি অস্ত্র পাচার সম্পূর্ণ করা হয়েছে।
চারঘট উপজেলা চেয়ারম্যান ফকরুল ইসলাম, মেয়র একরামুল হক, সাবেক মেয়র জাকিরুল ইসলাম বিকুল, সারদা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধু ওসির সেবা প্রদানে আন্তরিক বলে জানান।
এদিকে বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলু যুগান্তর জানান, ওসি নজরুল ইসলামকে আমি যতটুককু দেখেছি ও চিনি তাতে তাকে একাডেমিক এবং প্রজিটিভ মানুষিকতা সম্পন্ন লোক হিসেবেই আমার মনে হয়েছে এবং তাঁকে আমি সেই হিসেবেই জানি। এই পযর্ন্ত বাঘা থানায় যতো ওসি এসেছেন তাদের তুলনার ওসি নজরুল ইসলামের উপরে একটা আস্থার জায়গা পেয়েছেন সাধারণ মানুষ।
বাঘা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আবদুল লতিফ মিঞা, সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক আমানুল হক আমান জানান, ওসি নজরুল ইসলাম আসলেই আলাদা প্রকৃতির একজন মানুষ।
বাঘা থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, আমার মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়ার পর পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপির সহযোগিতা ও পরামর্শে স্কয়ার হাসপাতালে অস্ত্র পাচার ভালোভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে।
এ বিষয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর রাজনৈতিক এপিএস সিরাজুল ইসলাম জানান, ওসি নজরুল ইসলাম যখন দূরারোগ্য মেনিনজিওমা রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শুরু থেকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী স্যার প্রতিদিনই তার সার্বিক খোঁজ খবর রেখেছেন এবং চিকিৎসায় ফাইনান্স প্রোভাইড করেছেন। পাশাপাশি পুলিশ বিভাগও তার পাশে আছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে