পহেলা মার্চ তালা ভেঙে হলে ঢোকার হুঁশিয়ারী রাবি শিক্ষার্থীদের

0
27

পান্না, রাজশাহী ব্যুরো :
আগামী ২৮ ফেব্রæয়ারির মধ্যে হল খুলে দেওয়া না হলে মার্চের ১ তারিখে তালা ভেঙে হলে ঢোকার হুঁশিয়ারী দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার সময় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পিছনের চত্বরে সমবেত হয়ে শিক্ষার্থীরা এ হুঁশিয়ারী দেন।
ওাবি শিক্ষার্থীরা জানান, আগামীকাল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যদের সাথে ইউজিসির বৈঠক আছে। বৈঠকে যদি হল খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া না হয় তাহলে ফেব্রæয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করবে। এরপরও যদি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হল না খুলে দেয় তাহলে আগামি ১ মার্চে তালা ভেঙে হলে প্রবেশ করা হবে।

রাবির অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী খাইরুল ইসলাম দুখু বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরা ক্যাম্পাসের বাইরে অবস্থান করছি। আর করোনার কারণে আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থাও অনেকটা নাজুক হয়ে পড়েছে। ফলে আর আমাদের মেসে থাকা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা ক্লাসে ফিরতে চাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘যদি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যৌক্তিক কোন সিদ্ধান্ত না নেয় তাহলে আমরা ২৪ ফেব্রæয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করব। সেদিন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের’ স্টিয়ারিং কমিটির নির্বাচন। এজন্য দুই দিন আন্দোলন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরপরেও যদি কোন যৌক্তিক সিদ্ধান্ত না আসে তাহলে ২৫ ফেব্রæয়ারি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা আমাদের ঘোষণা জানিয়ে দিব। তবে ২৮ তারিখের পর আমরা আর চুপ করে থাকবো না। পহেলা মার্চেই যে কোন ভাবে হলে প্রবেশ করবো।

সমাবেশে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে উপাচার্যদের বৈঠক আছে। সেখানে জোরালোভাবে শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়টি উপস্থাপন করা হবে। এখন পর্যন্ত সরকারের দায়িত্বশীলদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ করছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের হল-ক্যাম্পাস খুলে দেয়ার দাবিতে গত দুই দিন ধরেই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল শনিবার দুপুর ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে হল-ক্যাম্পাস খুলে দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলেন শিক্ষার্থীরা।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে