বাঘায় যুবলীগ নেতাকে মারপিটের মামলায় গ্রেফতার ৩

0
122

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি:
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার রুস্তমপুর ভারতীপাড়া গ্রামের আজিবর রহমান (৩২) নামে এক যুবলীগ নেতাকে মঙ্গলবার সকালে দুস্কৃতিকারীরা মারপিট করে তার পা ভেঙ্গে দিয়েছে। এ ঘটনায় আজিবরের স্ত্রী নামজা রহমান বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় পুলিশ রাতে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে। আজিবর রহমান আড়ানী পৌরসভার ৯ নম্বর রুস্তমপুর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি।
মামলার বাদী আজিবরের স্ত্রী নাজমা রহমান অভিযোগে উল্লেখ করেন, গত ১৬ জানুয়ারী আড়ানী পৌর নির্বাচনে তার স্বামী ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা আজিবর রহমান নৌকার পক্ষে ভোট করায় আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মুক্তার আলীর কর্মী সমর্থকরা মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে মোমিনপুর ঈদগা মাঠের সামনে একা পেয়ে লোহার রড় ও হাতুড়ি দিয়ে মারপিট করে গুরুত্বর জখম করে ডান পা ভেঙ্গে দিয়েছে।
এই ঘটনায় মেয়র মুক্তার আলীকে প্রধান আসামী করে ১০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ১০-১৫ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে আজিবর রহমান রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েন।
এ মামলায় পুলিশ ওই রাতে তিনজন আসামী’কে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হলেন-রুস্তমপুর গ্রামের ভুলা ওরুপে টগর (৩৭), আব্দুল আল মামুন (৩৫), সজিব হোসেন (২৮)।
প্রসঙ্গত, ১৬ জানুয়ারি নির্বাচনে মুক্তার আলী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শহীদুজ্জামান শাহীদকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন। এরপর থেকে নৌকার পক্ষে অবস্থান নেয়া আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর নানাভাবে নির্যাতন চালানো হচ্ছে বলে দাবি করেন শহীদুজ্জামান শাহীদ।
তবে এই দাবি সত্য নয় বলে উল্লেখ করে মেয়র মুক্তার আলী বলেন, আজিবরকে ফাঁকা জায়গায় একা পেয়ে কে-বা কাহারা মারপিট করেছে শুনেছি। অথচ এ মামলায় আমাকে প্রধান আসামী করে আমার পক্ষের আরো ১০ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তদন্ত আব্দুল বারী বলেন, দুস্কর্মের সাথে ঘটনা স্থলে না থেকেও সহযোগী থাকায় যে কেউ আসামী হতে পারে। এই মামলায় রাতে তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীদের বুধবার সকালে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। #

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে