সন্ত্রাসী যে কেউ হোক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা : ডিআইজি

0
14

পান্ন, রাজশাহী ব্যুরো :
রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার বাকশিমইল ইউনিয়ন পরিষদ, কেশরহাট পৌরসভা বিট পুলিশের এর আয়োজনে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার বেলা ১১ টায় মোহনপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় হলরুমে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এ বিএম মাসুদ হোসেনের বিপিএম (বার) সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী রেঞ্জ এর ডি আইজি আব্দুল বাতেন বিপিএম, পিপিএম তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেছেন পুলিশ ও মানুষের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতেই বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

অপরাধ প্রবণতা ও মাদক রোধে এই বিট পুলিশং অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। সমাজের প্রত্যেককে সঙ্গে নিয়ে বিট পুলিশিংয়ের কাজ তরান্বিত করতে হবে আরো বলেন, সন্ত্রাসী যে কেউ হোক না কেন তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অপরাধীরা কেউ ছাড় পাবে না। থানার দালার ও ফিটিংবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কেউ ফিটিং করে মানুষকে হয়রানী ও ক্ষতিগ্রস্থ করলে তার কোন ছাড় হবে না। এক্ষেত্রে পুলিশও যদি জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, আমাদের সবাইকে ভাল থাকতে হবে। মাদক নির্মুল করতে হবে। এজন্য পুলিশের পাশাপাশি সাধারন মানুষকেও এগিয়ে আসতে হবে। যোগ্য সন্তান তৈরী করতে হলে মাদক থেকে দুরে রাখতে হবে। সন্তানদের প্রতি অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে। সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে।

বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড আব্দুস সালাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানওয়ার হোসেন,সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদ বিন কাশেম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন কবিরাজ, যুগ্ম সম্পাদক পৌর মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(প্রশাসনও অপরাধ)মাহমুদুল হাসান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( জেলা বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ মতিউর রহমান সিদ্দিকী, পুলিশ সুপার সদন সার্কেল সুমন দেব, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মেহবুব হাসান রাসেল ও ভাইস চেয়ারম্যান সানজীদা রহমান রিক্তা, অফিসার ইনচার্জ মোস্তাক আহম্মেদ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খালেদুর রহমান।

সমাবেশে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন প্রতিরোধে করণীয় সম্পর্কে অতিথিদের পাশাপাশি অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন হিন্দু বৌদ্ধ খিস্টান পরিষদ এর সভাপতি দিলীপ কুমার সরকার তপন, ইউপি চেয়ারম্যান আলমোমিন শাহ গাবরু, স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীবৃন্দ।অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন ফারজানা লাকি। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পৌর কাউন্সিলরবৃন্দ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, থানা পুলিশের অন্যান্য অফিসার বৃন্দ ও স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে