‘আপু, আপনাকে নিলে সমস্যা হবে না?’

0
78

পর্দা নিয়ে নওশাবার মাথাব্যথা নেই। নেই ক্যামেরা নিয়েও। প্রেক্ষাগৃহ থেকে মুঠোফোন, শিল্পী হিসেবে এর যে কোনো পর্দায় উপস্থিত থাকতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন তিনি। জার্মানির আরি অ্যালেক্সা ক্যামেরা থেকে চীনদেশি স্মার্টফোনের ক্যামেরার সামনেও হাসিমুখে দাঁড়াতে পারেন। কিন্তু কেউ তাঁকে হাত ধরে টেনে নেয় না। কেবল বলে, ‘আপু, আপনাকে নিলে সমস্যা হবে না তো?’

পরিহাসের হাসি হাসতে হাসতে গেল সন্ধ্যায় নিজের দুঃখের কথা বলছিলেন অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদ। বেদনা জড়ানো কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষ আমার সঙ্গে সানন্দে ছবি তোলে, ফেসবুকে পোস্ট করে। কিন্তু মিডিয়ার কেউ সেলফি তুলে বলে “এই ছবিটা কেবল নিজের জন্য তুলেছি, পোস্ট করতে পারব না”, আমি বিষয়টি বুঝে নিই। আমি মানুষটাই যেন সেন্সরড। আমার ক্ষেত্রে শিল্পী ও নির্মাতারা সবাই সেন্সর বোর্ড হয়ে গেছে।’

অনেক অভিনয়শিল্পীর দেওয়ার মতো সময় নেই। অনেকের বিরুদ্ধেই সময় দিয়েও শিডিউল ফাঁসানোর অভিযোগ পাওয়া যায়। অথচ ঘরে বসে বসে পুতুল তৈরি করছেন নওশাবা। নিজের দল ‘টুগেদার উই ক্যান’ নিয়ে মাঝে মাঝে পুতুলনাট্যের আয়োজন করছেন। তিনি বলেন, ‘ফান্ড তুলে তিন মাসে হয়তো ১টা শো করি। সেগুলো খরচ করে ফেলি কলাকুশলীদের পেছনে। অথচ শিল্পী হিসেবে শারীরিক-মানসিক দিক থেকে আমাকে থাকতে হচ্ছে সদা প্রস্তুত। যে কেউ ডাকলেই আমি কাজের জন্য ঝাপিয়ে পড়তে পারব। নিয়মিত পড়াশোনা, ফিল্ম দেখার মতো কাজগুলো আমাকে করতেই হয়।’

গত মাসে রুনা লায়লার সুর ও সংগীত পরিচালনায় কিংবদন্তিতুল্য কণ্ঠশিল্পী রাহাত ফতেহ আলী খানের কণ্ঠে প্রকাশিত হয় ‘ভালোবাসা আমার পর হয়েছে’ গানটি। গানটির মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছিলেন নওশাবা। পরিচালনা করেছিলেন শাহরিয়ার পুলক। এ ছাড়া তানভীর চৌধুরী পরিচালিত ‘এসো সুসংবাদ এসো’, নানজিবা খান পরিচালিত ‘দ্য আনওয়ানটেড টুইন’, শাব্দিক শাহিন পরিচালিত ‘দ্য ন্যাকেড সোল’ স্বল্পদৈর্ঘ্যগুলোতে কাজ করেছিলেন তিনি। এই স্বল্পদৈর্ঘ্যের তরুণ পরিচালকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে নওশাবা বলেন, ‘এই তরুণেরা ভয় পায় না। আমি দুরন্ত টেলিভিশন ও নতুন এই নির্মাতাদের কাছে ভীষণ কৃতজ্ঞ। তাঁরা আমাকে বাড়ি থেকে বের করে এনেছে। এসে বলেছে, আপু এই চরিত্রটা আপনার জন্যই।’ প্রতিষ্ঠিত নির্মাতাদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার এখন অনেক কাজ করার কথা। অনেক জায়গায় থাকার কথা। কাজের প্রসঙ্গে অনেককেই বলতে শুনি, “আপু আপনাকে কাজে নিলে কোনো সমস্যা হবে না তো?” আমি একজন শিল্পী। আমাকে ভ্রমণে বা অভিনয়ের ব্যাপারে কোনো বাধ্যবাধকতা দেওয়া হয়নি। তবু কেন আমাকে নেওয়া হয় না, সেটা আমি বুঝি। কিন্তু সেই কারণটা যুক্তিযুক্ত নয়।’

নওশাবার পরিচালনায় পুতুলনাট্য ‘মুক্তি আলোয় আলোয়’-এ কাজ করেন সেন্টার ফর দ্য রিহ্যাবিলিটেশন অব দ্য প্যারালাইজডে (সিআরপি) চিকিৎসা পাওয়া পক্ষাঘাতগ্রস্ত শিল্পীরা। এ ছাড়া অনলাইন প্ল্যাটফর্ম হইচইয়ের ধারাবাহিক ‘একেন বাবুর ঢাকা রহস্য’তে মেহেরুন্নেসা চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে। আগেও বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করে সবার দৃষ্টি কেড়েছিলেন নওশাবা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে